ভর ও শক্তির নিত্যতা -সূত্র (Theory of the conservation of mass and energy)||Page-153

  ভর ও শক্তির নিত্যতা -সূত্র (Theory of the conservation of mass and energy)





মহাবিশ্বের কোন পদার্থ বা শক্তিকে ধ্বংস করা যায় না, রূপান্তরিত করা যায় মাত্র, বিজ্ঞানে পড়ানাে হয় এই সূত্র। চেতনা জড়ের উপর ক্রিয়া করে, ফলে গড়ে ওঠে গগনচুম্বী ইমারত, শহর, পরমাণু বােমা। রচিত হয় কাব্য, শিল্পকলা। 




সকলেই উপলব্ধি করতে পারে, জড় পদার্থের চেয়ে (অপরা শক্তি) চেতন পদার্থ (পরা শক্তি) অনেক বেশি সূক্ষ্ম, মহার্ঘ, শক্তিশালী। তাহলে-জড় পদার্থ ও শক্তি যদি কখনাে ধ্বংস না হয়, চেতন পদার্থ ও শক্তি কেন ধ্বংস হবে?


 হতে পারে, কারও মৃত্যুর সময় আমাদের অলক্ষিতে চলে যাচ্ছে সেই চেতনশক্তি, ব্যক্তিত্ব; কিন্তু তার অর্থ এই নয়, সেটি চিরতরে ধ্বংস হয়ে গেল। যেমন, বিশ্বে ব্যয়িত শক্তি এনট্রপিরূপে সঞ্চিত হয় পরিবেশে সাধারণ মানুষ না জানলেও বিজ্ঞানীরা জানেন----সেই তথ্য কিভাবে সঞ্চিত এনট্রপি ভবিষ্যতে বিশ্বের অস্তিত্বের পক্ষে হয়ে উঠতে পারে ধ্বংসাত্মক, তারা অবগত সেই তথ্য।

 তাই চেতনাশক্তি দেহ হতে অন্তৰ্হিত হলে ‘আমি দেখতে পাচ্ছি না বলেই সেটি ধ্বংস হয়ে যাবে, এই চিন্তা কি যুক্তিসঙ্গত, বিজ্ঞানসম্মত (Rational)? তাছাড়া, কিছুই যে ধ্বংস হয় না, ভর ও শক্তির নিত্যতা সূত্রই তার সপক্ষে একটি স্থূল বৈজ্ঞানিক প্রমাণ।



Click Here >>>Subscribe






Comments

Email Subscription

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner