Page

Follow

মহাবিশ্বের উদ্ভব : দুর্ঘটনা না সুপরিকল্পনা ? বিশ্ববিশ্রুত বিজ্ঞানীরা কি বলছেন ?PAGE-47

 

 বিশ্ববিশ্রুত বিজ্ঞানীরা কি বলছেন?

PAGE-47



গ্যালিলিও গ্যালিলি 



"For the Holy Scripture and nature both equally derive from the divine word, the former as the dictation of the Holy Spirit, the latter as the most obedient executive of God's commands..... she never transgresses the terms of the laws imposed on her


“কেননা পবিত্র ধর্মগ্রন্থ এবং প্রকৃতি উভয়েই সমভাবে ঈশ্বরীয় বাণী হতে প্রেরণা গ্রহণ করে প্রথমটি (ধর্মগ্রন্থ) দিব্য পুরুষের নির্দেশ হিসাবে, পরেরটি (প্রকৃতি) ভগবানের আদেশাবলীর সবচেয়ে অনুগত কার্যনির্বাহিকা হিসাবে। প্রকৃতি কখনই তার উপর যে নিয়মসুত্রাবলী আরােপিত হয়েছে, তা লঙঘন করে না।”



নিকোলাস কোপারনিকাস



 "The universe has been brought for us by a supremely good and orderly Creator." *? অর্থাৎ- “এই বিশ্বব্রহ্মান্ড একজন পরম মঙ্গলময় ও শৃঙ্খলাবােধ সম্পন্ন স্রষ্টার দ্বারা আমাদের জন্য রচিত হয়েছে।”






আইজ্যাক নিউটন ঃ 



"This most beautiful system of the sun planets, and comets, could only proceed from the counsel and dominion of an Intelligent and Powerful Being”


” অর্থাৎ “সূর্য, গ্রহরাজি ও ধূমকেতুসমূহ সহ এই সর্বোত্তম সুন্দর বিশ্বব্যবস্থা কেবল একজন বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন ও শক্তিশালী ব্যক্তিত্বের দ্বারাই রচিত হতে পারে।”


 "The motions which the planets now have, could not spring from any natural cause alone, but were impressed by an Intelligent Agent.” 


অর্থাৎ “গ্রহসমূহের যে গতিবেগ বর্তমানে রয়েছে, তা কখনাে কেবল প্রাকৃতিক কারণে উদ্ভূত হওয়া সম্ভব নয়, একজন পরম বুদ্ধিমান ব্যক্তিত্বের দ্বারাই ঐ আবর্তন-বেগগুলি গ্রহসমূহকে দেওয়া হয়েছে।


অ্যালবার্ট আইনস্টাইন ,



 “I want to know how God created this world. I am not interested in this or that phenomenon, in the spectrum of this or that element. I want to know His thoughts, the rest are details." 


“আমি জানতে চাই ভগবান কিভাবে এই বিশ্ব সৃষ্টি করেছেন। আমি দৃশ্যমান জগতের এই ধরনের বা ঐ ধরনের বাহ্য চেহারা অথবা এই উপাদান কি ঐ উপাদানের অবয়ব জানতে আগ্রহী। নই। আমি ভগবানের চিন্তাধারা জানতে চাই, বাকিটা হচ্ছে সেই চিন্তাধারার বাস্তব রূপায়ণ।” 


“God does not play dice with the world.” অর্থাৎ “ভগবান এই জগৎ নিয়ে পাশা খেলেন না”

“My God created laws..... this universe not ruled by wishful thinking, but by immutable laws.”

অর্থাৎ- “আমার ঈশ্বর নিয়মসমূহ রচনা করেছেন...। তাঁর বিশ্বব্রহ্মান্ড খেয়াল-খুশির দ্বারা শাসিত নয়, অপরিবর্তনীয় নিয়মের দ্বারা পরিচালিত।


"Everyone who is seriously involved in the pursuit of science becomes convinced that — a spirit is manifest in the laws of the universe, a spirit vastly superior to that of man." 


 “বিজ্ঞানের কাজে ঐকান্তিকভাবে নিরত, এমন প্রত্যেকে এই বিষয়ে দৃঢ়প্রত্যয়ী হন যে বিশ্বব্রহ্মান্ডের নিয়মসমূহের মধ্যে এক চেতন সত্তার অস্তিত্ব অভিব্যক্ত রয়েছে—যে সত্তা মানবীয় সত্তার চেয়ে বিপুল পরিমাণে শ্রেষ্ঠতর।”


“Everything is determined by forces over which we have no control. It is determined for the insect as well as for the star. Human beings, vegetables, or cosmic dust-we all dance to a mysterious tune, intoned in the distance by an invisible piper."


“সবকিছুই এমন কিছু শক্তির দ্বারা নির্ধারিত, যাদের উপরে আমাদের কোনাে নিয়ন্ত্রণ নেই। কীটপতঙ্গ বা নক্ষত্র—সবকিছুই এইভাবে শক্তি-নিয়ন্ত্রিত। মানুষ, শাকসজী, অথবা মহাজাগতিক ধূলিকণা—আমরা সকলেই সেই রহস্যময় সুরে নৃত্য করতে থাকি, দূর থেকে একজন অদৃশ্য বাঁশীবাদক যে সুর অনুরণিত করে চলেছেন।”


জর্জ ওয়াল্ড—নােবেল, পুরস্কারজয়ী 



“We find ourselves in a universe that breeds life and possesses the very particular properties..... the more deeply one penetrates, the more remarkable and subtle the fitness of this universe for life appears."

.অর্থাৎ- “আমরা এমন একটি বিশ্বব্যবস্থার মধ্যে নিজেদেরকে দেখি, যেখানে প্রাণের বিকাশ হচ্ছে এবং তার জন্য একান্ত প্রয়ােজনীয় বিশেষ পদার্থ ও শক্তির সমাহার এখানে রয়েছে...... কেউ যতই গভীরে প্রবেশ করতে থাকেন, ততই জীবনের ধারক এই ব্রহ্মান্ডের লক্ষণীয় ও সূক্ষ্ম নিখুঁত ব্যবস্থা ও শৃঙ্খলা প্রতীয়মান হতে থাকে।”


বি.ডি. জোসেফসন, ফিজিক্সে নােবেলজয়ী

 "We would say really the whole structure of science, once we get to the quantum level (where the unmanifest order makes observable order), would be directly the result of God's presence and works."



অর্থাৎ “আমরা বলব যে, আমরা যখন কোয়ান্টাম স্তরে প্রবেশ করব (যেখানে অনভিব্যক্তি বা অপ্রকাশিত শৃঙ্খলা দর্শনযােগ্য শৃঙ্খলায় পরিণত হয়), তখন সত্যিই বিজ্ঞানের সামগ্রিক কাঠামােটি ভগবানের উপস্থিতি ও কার্যকলাপের প্রত্যক্ষ ফলশ্রুতি-স্বরূপ হয়ে দাঁড়াবে।”





স্যার রজার পেনরােজ



 ইউনিভার্সিটি অব অক্সফোর্ড এর বিশ্বখ্যাত ম্যাথেম্যাটিক্যাল ফিজিসিস্ট, স্টিফেন হকিং এর সঙ্গে পদার্থ বিদ্যায় যুগ্ম Wolf Prize প্রাপ্ত, বহু বিজ্ঞান গ্রন্থের লেখক ঃ


 "I would say the universe has a purpose. It is not there somehow by chance." - “আমি বলব যে বিশ্বব্রহ্মান্ড সৃষ্টির পিছনে একটি উদ্দেশ্য রয়েছে। এমন নয় যে ঘটনাক্রমে কোন না কোন ভাবে আপনা থেকে মহাবিশ্বের উদ্ভব হয়েছে।” 


 "One has an extraordinarily highly organized ordered initial state of the universe. Otherwise we wouldn't have the second law of thermodynamics. This law is a consequence of the fact that the universe is in a highly organized state and is subject to gradual degradations as time evolves. How is it that this highly organized state could have originated from a random like explosion ?



অর্থাৎ “বিশ্বব্রহ্মান্ডের সৃষ্টির সূচনালগ্নটি অত্যন্ত শৃঙ্খলাপূর্ণ, সুসংগঠিত ছিল। তা না হলে আমরা তাপগতিবিদ্যার দ্বিতীয় নিয়মটি ব্রহ্মান্ডে পেতাম না। 

 এই নিয়মটি এই বাস্তব ঘটনার ফলশ্রুতি যে ব্রহ্মান্ডটি অত্যন্ত সুনিয়মবদ্ধ, শৃঙ্খলাপূর্ণ এবং সময়ের গতিতে এটির অবক্ষয় হতে থাকবে। (পরিশেষে মহাপ্রলয় বা ধ্বংস) ....। তাহলে এটা কেমন করে সম্ভব হতে পারে যে এক চকিতে ঘটে যাওয়া বিস্ফোরণের মাধ্যমে একটি অত্যন্ত সুবিন্যস্ত, সুসংগঠিত অবস্থার সৃষ্টি হলাে?”



পশ্চিমবঙ্গের প্রথিতযশা বিজ্ঞানী


* জগদীশ চন্দ্র বসু।



 "India through her habit of mind is peculiarly fitted to realize the idea of unity, and to see in the phenomenal world an orderly universe” অর্থাৎ- “ভারতের মানুষের মানসিকতা বিশ্বজনীন ঐক্য উপলব্ধি এবং দৃশ্যমান জগতের মধ্যে এক সুসংগঠিত। বিশ্বব্যবস্থা দর্শনের জন্য অদ্ভুত ভাবে সুব্যবস্থিত।”



 

বিকাশ সিংহ, নিউক্লিয়র ফিজিসিস্ট 


ডিরেক্টর, ভেরিয়েল এনার্জি সাইক্লোট্রন সেন্টার, ভাবা পরমাণু গবেষণাকেন্দ্র, সল্ট লেক; ফেলো , ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল সায়েন্স অ্যাকাডেমী


“একটা জিনিস, আমার কাছে স্পষ্ট ঐ যে কেউ বলেন, The world is a chance  phenomenon, আমি বিশ্বাস করি না তা। আমি বিশ্বাস করি, there is some spirit somewhere which is creating all these things. It is not just a chance"


“বড়াে বিস্ময় জাগায় এই বিশ্বসৃষ্টির রহস্য। বিজ্ঞানে এর পরিষ্কার উত্তর নেই। কে ঐ মহাবিস্ফোরণ ঘটিয়েছে বিশ্ব সৃষ্টি বিজ্ঞান তার স্পষ্ট উত্তর দিতে পারে না।”

“মহাভারতেকৃষ্ণ অর্জুনকে যে বিশ্বরূপ দর্শন করিয়েছিলেন তার সঙ্গে বিজ্ঞানের চিন্তাধারায় অনেক মিল আছে। 


বিশ্বসৃষ্টির আগে যে মহাতেজ ছিল সেই তেজ কোথা থেকে এসেছিল, বিজ্ঞানী হিসাবে তার উত্তর আমার জানা নেই। দার্শনিক হিসাবে স্বীকার করতে রাজী আছি. ঈশ্বরই সেই তেজ সৃষ্টি করেছিলেন এবং তারপর মহাভারতে বিশ্বরূপ দর্শনের যে বর্ণনা সঙ্গে পনের শাে’ কোটি বছর আগেকার ঐ বিস্ফোরণের দৃশ্যের অনেকখানি মিল খুঁজে পাওয়া যায়।



গােরাচঁাদ চট্টোপাধ্যায়, জৈবরসায়নবিদ


 সায়েন্টিস্ট ইন চার্জ, ন্যাশনাল প্রােগ্রাম অন হেভি মেটাল পলুশন , পরিবেশ দপ্তর, ভারত সরকার; ফেলাে (প্রাক্তন), বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।


“আমাদের সৌরমন্ডলের কথা ধরুন। সূর্যের চারপাশে গ্রহরা তাদের নির্দিষ্ট কক্ষপথে অবিরাম ঘুরছে। এই যে তাদের মুভমেন্ট, এর একটা আশ্চর্য সিনক্রোনাইজেশান আছে। ধরুন, আজ থেকে দশ বছর পরে একটা চন্দ্রগ্রহণ কি সূর্যগ্রহণ হবে। আমাদের ম্যাথমেটিক্যাল সায়েন্স এত উন্নতি করে গেছে যে, আমরা অঙ্ক কষে বলে দিতে পারি, অমুক দিন অমুক সময় এই গ্রহণ হবে। এ একটা ফ্যান্টাস্টিক ব্যাপার। 


আমার মনে হয়, আমাদের বিশ্বব্রহ্মান্ডের এই যে গতিশীলতা, কোনাে এক অতিপ্রাকৃত শক্তি একে নিয়ন্ত্রণ করছে। এই যে একটা সুপারন্যাচরাল ফোর্স বা গাইডিং ফোর্স এটা কিন্তু সামথিং মিরাকুলাস।”


ভাস্কর বালিগা, নিউক্লিয়র সায়েন্টিস্ট, কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় 


“দেখতে পাচ্ছেন, প্রকৃতি কী আশ্চর্য সুন্দরভাবে সব দিকে সঙ্গতি রেখে তার কাজ করে চলেছে। কোথাও নিয়ম ভাঙছেনা। যেখানে নিয়ম ভাঙছে মনে হচ্ছে সেখানেও নিয়মের মধ্যে ভাঙছে। তাহলে নিশ্চয়ই একটি বড় শক্তি তাকে চালাচ্ছে।” 



দিওয়াল স্ট্রীট জার্ণালে ‘Science Resurrects God' প্রবন্ধে বিজ্ঞানী জিম হল্ট “I was reminded of this a few months ago when I saw a survey in the journal Nature. It revealed that 40% of American physicists, biologists and mathematicians believe in God and not just some metaphysical abstraction, but a deity who takes an active interest in our affairs and hears our prayers: the God of Abraham, Isaac and Jacob."




 বিজ্ঞানী কেপলার 


 "I have endeavoured to gain for human reason, aided by geometrical calculation, an insight into His way of creations; may the Creator of the heavens themselves, the father of all reason, to whom our mortal senses owe their existence, may He who is Himself immortal ..... keeps me in His grace and guards me from reporting anything about His work which cannot be justified before His magnificence or which may misquide our pioneers of reason."


Click Here >>>Subscribe






Comments

y3

yX Media - Monetize your website traffic with us Monetize your website traffic with yX Media Monetize your website traffic with yX Media

This Blog is protected by DMCA.com

Subscribe

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

Email Subscription

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

sharethis-inline