Page

Follow

কোটি কোটি বছর পূর্বেও ছিল আধুনিক মানুষের অস্তিত্ব? || Page-114


কোটি কোটি বছর পূর্বেও ছিল আধুনিক মানুষের অস্তিত্ব? 

কোটি কোটি বছর পূর্বেও ছিল আধুনিক মানুষের অস্তিত্ব?


হ্যাঁ, ছিল। বিস্ময়কর মনে হলেও সত্যি। বহু প্রমাণই মিলেছে, কিন্তু মানুষের আবির্ভাবসংক্রান্ত বর্তমানের বিবর্তন মতবাদের সঙ্গে মেলে না বলে সেই প্রমাণগুলিকে উপেক্ষা বা অগ্রাহ্য করা হয়েছে, ‘অ্যানােমােলাস এভিডেন্স’ হিসাবে দূরে সরিয়ে রাখা হয়েছে। প্রচলিত ধারণায় আধুনিক মানুষ, ‘হোমো স্যাপিয়েনস  স্যাপিয়েন্স’-দের আবির্ভাব ১ লক্ষ বছর পূর্বে।। কিন্তু বাস্তবের প্রত্নতত্ত্ব অন্য কথা বলে।


সম্প্রতি দুজন গবেষক বিজ্ঞানী মাইকেল এ ক্রেমাে এবং রিচার্ড এল থম্পসন একটি দুঃসাহসিক কাজ করেছেন তারা বহু বছর রিসার্চ করে দুটি বই লিখেছেনঃ The Forbidden Archaeology এবং  The Hidden History of Human Race (Govardhan Hill publishing California, 1994)। 

কোটি কোটি বছর পূর্বেও ছিল আধুনিক মানুষের অস্তিত্ব?


বিবর্তনবাদী, প্রত্মতত্ত্ববিদ, বিজ্ঞানী, গবেষকদের মধ্যে বই দুটি যথেষ্ট আলােড়ন সৃষ্টি করেছে; ক্রেমো প্রায় 60 টি দেশে টিভি ইন্টারভিউ দিয়েছেন। সেখানে তিনি বর্তমানের ফসিল রেকর্ড-ভিত্তিক বিবর্তনবাদের গলদ ও প্রতারণার ইতিবৃত্তও ডেটিং মেথডের ক্রটি প্রকাশ্যে এনেছেন, দেখিয়েছেন লক্ষ লক্ষ, এমনকি কোটি কোটি বছর পূর্বেও ছিল আধুনিক মানুষের অস্তিত্ব, ছিল সভ্যতা মিলেছে অলংকার, পাত্র, অস্ত্র। কিন্তু বর্তমান তত্ত্বের সংগে সঙ্গতিপূর্ণ নয় বলে সেগুলি উপেক্ষিত হচ্ছে।


‘দি হিডেন হিস্ট্রি অব হিউম্যান রেস’ বইটির সূচনাতে দেওয়া কয়েকজন বিজ্ঞানী গবেষকের মন্তব্য ঃ ।

“What an eye-opener ! I did not realize how many sites and how much data are out there that don't fit modern concepts of human evolution......... I predict the book will become an underground classic."

-Dr. Virginia Steen, Geologist “

এমনকি যখন মানুষের পূর্বপুরুষ বলে কল্পিত সরল প্রাইমেটরাও ছিল না (বলে ধরা হয়), তারও অনেক পূর্বে আধুনিক মানুষের আবির্ভাবের তথ্য শুধ স্বীকৃত উদ্ভব-কাহিনীর  পক্ষেই ধ্বংসাত্মক হবে না, এটি বিবর্তনের সমগ্র মতবাদের পক্ষেই হবে ধ্বংসাত্মক।।

-W.W. Howels, Physical Anthropologist

কোটি কোটি বছর পূর্বেও ছিল আধুনিক মানুষের অস্তিত্ব?


নৃতত্ত্ববিদ প্রফেসর হাওয়েলসের মন্তব্য আগামী দিনের দিক চিহ্ন হয়ে উঠবে, সন্দেহ নেই, কেননা কল্প-কাহিনীর পক্ষে বাস্তব সত্য চিরকালই ধ্বংসাত্মক হয়ে থাকে। ক্রেমাে ও থমনের এই গবেষণা-গ্রন্থের তথ্য-নিবন্ধ বিশ্বখ্যাত বিজ্ঞান পত্রিকা ও সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছে – যেমন দি জিত্তলজিস্ট, সায়েন্টিফিক আমেরিকান, আমেরিকান জার্নাল অব সায়েন্স, লন্ডন টাইমস, আমেরিকান উইকলি ইত্যাদি।


 বিবর্তনবাদের বিকল্প হিসাবে এমনকি প্রথিতযশা বিবর্তনবাদী বিজ্ঞানীরাও সম্প্রতি “ইনটেলিজেন্ট ডিজাইন থিওরী”বা বুদ্ধিমত্তাপূণ-রুপায়ণ-তত্ত্ব’-এর দিকে ঝুঁকছেন, যাতে ভগবানকে সরাসরি স্বীকার করা হচ্ছে, তাতে ক্ৰেমাে থম্পসনের এই ব্যাপক ও গভীর গবেষণা কর্মের তীব্র প্রভাব রয়েছে।


Click Here >>>Subscribe






Comments

y3

yX Media - Monetize your website traffic with us Monetize your website traffic with yX Media Monetize your website traffic with yX Media

This Blog is protected by DMCA.com

Subscribe

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

Email Subscription

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

sharethis-inline