Follow

মনঃ আধুনিক বিজ্ঞানের কাছে আজও অধরা || Page-96

  মনঃ আধুনিক বিজ্ঞানের কাছে আজও অধরা 



আধুনিক জড়বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে জড় ছাড়া কিছুই নেই, অথচ সেই জড়বিজ্ঞানের সাহায্যে ধরা যায় না মনকে। মন কি জড়বস্তু? উত্তর খুঁজেছেন বিশ্বখ্যাত ফিজিসিস্ট, বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী এরভিন শ্রয়েডিংগাব, তার মাইন্ড অ্যান্ড ম্যাটাব বইয়ে শেষ কথা অবশ্য লেখা হয়নি কোন বিজ্ঞানের বইয়ে। ইন্দ্রিয়ে মন সংযুক্ত না হলে ডেটা প্রবেশ করে না মস্তিষ্কে; অতএব মস্তিষ্কই সব নয়। যেমন একটি ছাত্র যদি টিভিতে শিকার দৃশ্য দেখতে দেখতে পড়তে থাকে, তার মস্তিষ্কে থাকবে না পড়ার তথ্য, স্টোর হবে শিকারের স্মৃতি। 


এমন ঘটনা পৃথিবীতে রয়েছে যে কোন সৈনিকের মস্তিষ্কে গুলি বিধেছে, কিন্তু তার মন-স্মৃতি-চেতনা রয়েছে অটুট। NDE বা নেয়ার ডেথ এক্সপিরিয়েন্স নামে যে রেকর্ড রাখা হয় ইউরােপ আমেরিকার হাসপাতালে, সেখানে এমন বহু দৃষ্টান্ত রয়েছে যে অজ্ঞান অবস্থায় দেহে কয়েক ঘন্টার অস্ত্রোপচারের পর রােগী হুবহু বর্ণনা দিচ্ছে অপারেশনের ।*


 এইভাবে মন মস্তিষ্ক থেকে ভিন্ন, যদিও মন মস্তিষ্কের সাহায্য নিয়ে কাজ করে। মন রয়েছে, মনােবিজ্ঞানী স্বীকার করেন। (না হলে ‘মনােবিজ্ঞান’ শব্দটিই অর্থহীন)। কিন্তু মন কি? মনের রাসায়নিক সমীকরণ কি ? কেউ জানে না। মন খারাপ থাকলে প্রেসার বাড়ে, দুশ্চিন্তা জন্ম দেয় হৃদরােগের। অতএব, মনকে অস্বীকার করা যায় না। বৈদিক শাস্ত্র ও ভগবদগীতা অনুসারে, মন সূক্ষ্ম জড় বস্তু (Subtle matter)। ঘটনাচক্রে’ আপনা থেকে কিভাবে উদ্ভূত হতে পারে অত্যাশ্চর্য অনুভব-যন্ত্র মন’,যা বিজ্ঞানীরা কোটি কোটি ডলার ব্যয় করেও দিতে পারেননি রোবর্টকে ?

Subscribe For Latest Information






Comments

This Blog is protected by DMCA.com

Subscribe

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

Popular Posts

Email Subscription

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

EMAIL SUBSCRIPTION