Adsterra 7

 

Follow

জাগতিক সম্পর্ক ; ক্ষণস্থায়ী, অতৃপ্তিকর; বাস্তব, শাশ্বত সম্পর্কের প্রতিফলন। PAGE-225



  জাগতিক সম্পর্ক ; ক্ষণস্থায়ী, অতৃপ্তিকর;

বাস্তব, শাশ্বত সম্পর্কের প্রতিফলন। 

PAGE-225


এই জগতে কোন জীব নিঃসঙ্গ বাঁচতে চায়না। বন্ধুত্ব, স্নেহবাৎসল্য, প্রেমমধুরতা সর্বজীবকে আনন্দরসে সম্পৃক্ত রাখে। সেজন্য কারও যাবজ্জীবনের কারাদন্ড হলে, দন্ডিত ব্যক্তি এই সম্পর্ক-নিঃসৃত আনন্দরস থেকে বঞ্চিত হবার ভয়ে বিমর্ষ হয়ে পড়ে। 


জড় দেহের সংরক্ষণের জন্য সে উদ্বিগ্ন হয় না, কেননা সরকার তার বন্দোবস্ত করবে। কিন্তু এই জগতের সব সম্পর্ক জড়দেহভিত্তিক। অস্থায়ী দেহের ভিত্তিতে, দৈহিক সম্পর্কের ভিত্তিতে কিছু জীবের সংগে নানারকম সম্বন্ধ গড়ে ওঠে ঃ বাবা, মা, ভাই, বােন, স্ত্রী, পুত্র ইত্যাদি। দাস্য, সখ্য, বাৎসল্য, মধুর—মুখ্যতঃ এই চারটি সম্পর্ক। মােট ১২টি সম্পর্ক হতে পারে। দেহভিত্তিক, জাগতিক। 


সম্পর্কের মাধ্যমে এই আনন্দানুভব কাউকেই পূর্ণ পরিতৃপ্তি দেয় না, কেননা প্রত্যেকের স্বভাব জড়া প্রকৃতির বিভিন্ন গুণে দূষিত। সেজন্য প্রায়ই গড়ে ওঠে দ্বন্দ্ব-সংঘাত। এমনকি আবেগময় দাম্পত্য সম্পর্কের ক্ষেত্রেও এই দ্বন্দ্ব সারা পৃথিবীর ‘ডিভাের্স’ রেটে প্রকট। সর্বোপরি, এই সম্পর্কগুলি ক্ষণস্থায়ী, সেজন্য তবু ভরিল না চিত্ত’ সিনড্রোমে সকলকেই কাতর হতে হয়। অশ্রুজল নিয়েই চিরবিদায় নিতে হয় পৃথিবীর রঙ্গমঞ্চ থেকে।


 বাদশাহ শাহজাহান তার বেদনাকে মর্মর স্থাপত্যে মূর্তায়িত করেন, তাজমহল’, ‘কালের কপােলতলে। শুভ্র সমুজ্জল, এক বিন্দু অশ্রুজল। কালের স্রোতে ভেসে যায় সব, জীবন-যৌবন-ধন-মান’। তাজমহলের নীচে শাজাহান মমতাজের দেহ এখন অবিভাজ্য জড় উপাদান।


কোন সম্পর্কে পরিতুষ্ট হতে পারে শাশ্বত আত্মার হৃদয়ের চিরন্তন সতৃষ্ণতা? নিত্য শাশ্বত সম্পর্কে। অতএব, সেই সম্পর্কের ক্ষেত্র রয়েছে।

বাসাংসি জীর্ণাণি —জীর্ণ বস্ত্রের মতাে যে দেহ পরিত্যাগ করতে বাধ্য হয় মানুষ, সেই দেহ পােশাক ভিত্তিক সব সম্পর্কই জীর্ণ হয়ে ঝরে পড়ে। অবাস্তব এর ভিত্তি। শাশ্বত আত্মাই শাশ্বত সম্পর্কের অস্তিত্বের প্রমাণ, যেমন গাছের প্রতিবিম্বই সত্যিকার গাছের অস্তিত্বের, বাস্তব বৃক্ষের প্রমাণ। ভগবান শ্রীকৃষ্ণ শাশ্বত, আর সমস্ত জীবসত্তা তাঁর  সনাতন অবিচ্ছেদ্য অংশ (মমৈবাংশে জীবলােকে জীবভূত সনাতন ভগী.-১৫.৭)। সেজন্য প্রত্যেক জীবসত্তার সংগে চির অবিচ্ছেদ্য আত্মিক’সম্পর্ক রয়েছে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের সংগে । 


ভগবদ্ধামে দাস্য-সখ্য-বাৎসল্য-মাধুর্য ইত্যাদি সম্পর্কগুলি চিরন্তন; জড়কলুষমুক্ত শুদ্ধ, দিব্যানন্দময়, এবং সেখানে সমস্ত জীবই শুদ্ধ ভগবদ্ভক্ত, তাঁরা সর্বদাই ভগবানের দিব্যানন্দপূর্ণ সাহচর্যে তার আনন্দবিলাসে অংশ নেন। যেমন, অর্জুন শ্রীকৃষ্ণের সখা। যুদ্ধক্ষেত্রে তিনি অর্জুনের রথের সারথি। জাগতিক স্বার্থভিত্তিক সম্পর্ক নয় এই সখ্যতা । শাশ্বত সম্পর্ক রয়েছে চিজ্জগতে। জড়জগতের বদ্ধজীবের সদা পরিবর্তনশীল ও ক্ষণস্থায়ী সম্পর্কগুলি চিজ্জগতে ভগবানের সংগে তাদের শাশ্বত সম্পর্কের প্রতিফলন।


Subscribe For Latest Information






Comments

This Blog is protected by DMCA.com

Subscribe

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

Popular Posts

adstera-6

         

Email Subscription

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

EMAIL SUBSCRIPTION