Adsterra 7

 

Follow

যোগব্যায়াম গোমুখাসন || গোমুখাসনের প্রণালী ||গোমুখাসনের উপকারিতা

 গোমুখাসন || গোমুখাসনের প্রণালী  ||গোমুখাসনের উপকারিতা

যোগব্যায়াম গোমুখাসন || গোমুখাসনের প্রণালী  ||গোমুখাসনের উপকারিতা


সব্যে দক্ষিণ গুলফং তু পৃষ্ঠোপার্শ্বে নিয়ােজয়েৎ। 

দক্ষিণেহপি তথা সব্যং গােমুখং গােমুখাকৃতি।।


এই আসনে অবস্থানকালে আসন অভ্যাসকারীর পায়ের অবস্থান গরুর মখের মত হয়, তাই মনে হয়—এই আসনের নাম গােমুখাসন।।



যোগব্যায়াম গোমুখাসন || গোমুখাসনের প্রণালী  ||গোমুখাসনের উপকারিতা



গোমুখাসনের প্রণালী —

১.প্রথমে পা দু’টি সামনে ছড়িয়ে সােজা হয়ে বসতেহবে ।।


২. বাঁ পা হাঁটুর কাছ থেকে ভেঙে ডান পায়ের নীচে বাঁ পা এনে বাঁ গােড়ালি দিয়ে ডান পাছা স্পর্শ করতেহবে। 


৩.তারপর ডান পা হাঁটুর কাছ থেকে ভেঙে বাঁ পায়ের উপর দিয়ে নিয়ে গিয়ে ডান পায়ের গােড়ালি দিয়ে বাঁ পাছা স্পর্শ  করতে হবে 


৪.মেরুদন্ড সােজা রেখে বসতে হবে। 


৫. এই বার ডান হাত মাথার উপর তুলে কনুইয়ের কাছ থেকে ভেঙে পিঠে নামাতে হবে  এবং বাঁ হাত কনুইয়ের কাছে ভেঙে ডান দিকে

ঘুরিয়ে ডান হাতের আঙ্গুল  ধরতে হবে। পুরোপুরি ছবির মত্ অবস্থায় নিজেকে আনতে হবে। 

যোগব্যায়াম গোমুখাসন || গোমুখাসনের প্রণালী  ||গোমুখাসনের উপকারিতা


৬.এরপর পা ও হাত বদলে অর্থাৎ ডান পা নীচে ও বাঁ পা উপরে- হাঁটুর উপর হাঁটু রেখে এবং গােড়ালি দিয়ে বিপরীত পাছা স্পর্শ করে বাঁ হাত কনুইয়ের কাছ থেকে ভেঙে পিঠে নামাতে হবে এবং ডান হাত বাঁ দিকে বেঁকিয়ে বাঁ হাতের আঙুল ধরে পূর্বের মত মেরুদন্ড সােজা করে বস্তে হবে । 


 ছবিতে এই  আসন অভ্যাসকালে পিছন দিক দিয়ে দু হাত কিভাবে ধরতে হবে—দেখান হয়েছে।


৭.এইভাবে পা বদল করে প্রতি পায়ে ৩ বার করে দু’পায়ে ৬ বার অভ্যাস করতে হবে । এই আসন অভ্যাসকালে যখন যে পা উপরে থাকবে, তখন সে হাত উপরে থাকবে এবং যে পা নীচে থাকবে, সেই হাতের চেটো ছবির মত বাইরে। দিকে থাকবে।



গোমুখাসনের উপকারিতা—

১.এই আসন পায়ের বাত, সায়টিকা বাত, অর্শ, মূত্রপ্রদাহ ও নিদ্রাহীনতা (ইনসমনিয়া) দূর করে এবং কামেচ্ছা দমন করে কামরিপুকে স্বাভাবিক অবস্থায় রাখে। 


২.মনে কুচিন্তা বা কুভাবনা উদয়কালে এই আসন অবলম্বনে সাময়িক উত্তেজনা প্রশমিত হয় এবং উত্তেজনাজনিত ক্ষয়-ক্ষতি অনেকটা নিবারিত হয়। 


৩.যাদের রাত্রে ঘুম হয় না, বা স্বপ্নদোষ হয়, তারা রাত্রে শােবার আগে এই আসনটি কয়েকবার অভ্যাস করে শয্যা আশ্রয় করলে বিশেষ ফল পাবে।


৪.যারা বিশেষত অনিদ্রায় ভোগেন তাদের জন্য এই আসনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এই আসনটি প্রতিদিন অভ্যাস করলে বিশেষত ঘুমানোর আগে অভ্যাস করলে ক্রমশ অনিদ্রা কেটে যাবে এবং ঘুম ঠিক সময়ে চলে আসবে। 


৫.যাদের দুর্বল হজমশক্তি অর্থাৎ একটু খেলে বদহজম হয়ে যায় তারা যদি এই আসনটি সকাল সন্ধ্যা অভ্যাস করে এবং খাওয়ার পর 10 মিনিট থেকে কুড়ি মিনিট অভ্যাস করে তাহলে তার হজম ক্ষমতা বেড়ে যাবে এবং বদহজম অম্বল গ্যাস ক্রমশ নিরাময় হয়ে উঠবে।হজম শক্তি কয়েকগুন বেড়ে যাবে। 

Subscribe For Latest Information






Comments

This Blog is protected by DMCA.com

Subscribe

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

adstera-6

         

Email Subscription

Enter your email address:

Delivered by FeedBurner

EMAIL SUBSCRIPTION